বিএসএফের হোস্টেল থেকে উধাও ২ মহিলা কনস্টেবল, তাঁদের মা যা বললেন শুনে অবাক পুলিশ!

Report: Sushil Kaushik

গোয়ালিয়র: মধ্যপ্রদেশের তেকানপুরের বিএসএফ অ্যাকাডেমিতে পোস্টিং ছিল আকাঙ্ক্ষা নিখার ও শাহানা খাতুন নামের দুই মহিলা কনস্টেবলের। ৬ জুন রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ হয়ে যান তাঁরা। বিএসএফ অ্যাকাডেমির তরফে বিলুয়া থাকায় এফআরআর দায়ের করা হয়েছে। আকাঙ্ক্ষা মধ্যপ্রদেশের জব্বলপুরের বাসিন্দা। শাহানার বাড়ি পশ্চিমবঙ্গে। পুলিশ জানিয়েছে, দুই মহিলা কনস্টেবল বিএসএফ অ্যাকাডেমির হস্টেল থেকে উধাও হয়ে যান। তাঁদের মোবাইল ফোন উদ্ধার হয়েছে।

আরও পড়ুন– আমেরিকায় যাত্রীদের ফেলে রোহিতদের আনতে বার্বাডোজে গেল বিমান! এয়ার ইন্ডিয়ার কাছে রিপোর্ট চাইল ডিজিসিএ

গত ২ জুলাই গোয়ালিয়রের এসপি অফিসে যান নিখোঁজ বিএসএফের মহিলা কনস্টেবল আকাঙ্ক্ষা নিখারের মা উর্মিলা নিখার। তিনি আরেক নিখোঁজ মহিলা কনস্টেবল শাহানা খাতুনের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলেছেন। উর্মিলার দাবি, শাহানাই ভুলিয়ে ভালিয়ে আকাঙ্ক্ষাকে নিয়ে পালিয়েছে। তিনি জানান, ২০২১ সালে বিএসএফে যোগ দেন তাঁর মেয়ে আকাঙ্ক্ষা। ২০২৩ সালে বাংলার মুর্শিদাবাদের শাহানা খাতুন আনসারির সঙ্গে মেয়ের পরিচয় হয়। তেকানপুরের বিএসএফ অ্যাকাডেমিতে বন্ধুত্ব হয় দু’জনের।

আরও পড়ুন– বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ১০ দেশের নাম জানেন? জিডিপি পার ক্যাপিটা অনুযায়ী রইল তালিকা

উর্মিলা আরও জানান, চলতি বছরের মার্চ মাসে শাহানা তাঁদের জব্বলপুরের বাড়িতে বেড়াতে আসেন। চারদিন থাকার পর মেয়েকে নিয়ে তাঁদের বাড়ি মুর্শিদাবাদে বেড়াতে যায়। সেখানে শাহানাদের বাড়িতেই থাকতেন আকাঙ্ক্ষা। এরপর ৬ মে বিএসএফ অ্যাকাডেমি থেকে তাঁর কাছে ফোন আসে। জানতে চাওয়া হয়, আকাঙ্ক্ষা বাড়ি ফিরেছে কি না। গোটা ঘটনার কথা বিস্তারিত জানান উর্মিলা। বলেন, আকাঙ্ক্ষা মুর্শিদাবাদের বাড়িতে বেড়াতে নিয়ে গিয়েছে শাহানা। এরপরই বিলুয়া থানায় নিখোঁজ ডায়রি করে বিএসএফ।

৭ জুন দু’জনের অবস্থানের খোঁজ পাওয়া যায়: জানা গিয়েছে, ৭ জুন আকাঙ্ক্ষা এবং শাহানা হাওড়ায় ছিলেন। ওই দিন রাত সাড়ে ১১টা নাগাদ মুর্শিদাবাদের বহরমপুরে দু’জনের একসঙ্গে থাকার খবর মেলে। তাঁরা বহরমপুরের এক অটো চালকের ফোন থেকে কাউকে ফোন করেছিলেন। এখান থেকে শাহান, তাঁর বোন, জামাইবাবু, পিসি এবং মেয়ে আকাশাকে নিয়ে উধাও হয়ে যান। অন্য দিকে, মেয়ের কোনও খবর না পেয়ে ১৩ জুন ছেলেকে সঙ্গে নিয়ে মুর্শিদাবাদে শাহানাদের বাড়ি যান উর্মিলা। সেখানে শাহানার বাড়ির লোককে আকাঙ্ক্ষার কথা জিজ্ঞেস করেন। কিন্তু অভিযোগ, কেউ কোনও উত্তর দেননি।

এরপর গত মঙ্গলবার গোয়ালিয়রের এসপি অফিসে গিয়ে শাহাবার নামে অভিযোগ জানান উর্মিলা। মেয়ের সঙ্গে অপ্রীতিকর কোনও ঘটনা ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা তাঁর। গোয়ালিয়র পুলিশের কাছে তিনি উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন। গোয়ালিয়র পুলিশ জানিয়েছে, বিএসএফের নিখোঁজ মহিলা কনস্টেবলদের খোঁজে তল্লাশি চলছে।

2024-07-04T08:09:38Z dg43tfdfdgfd